Feeds:
পোস্ট
মন্তব্য

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) কোর্সে ভর্তি-প্রক্রিয়া ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে। এবার শিক্ষার্থীরা ঘরে বসেই মুঠোফোনে এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। এ জন্য শিক্ষার্থীদের একটি টেলিটকের প্রিপেইড সংযোগ ব্যবহার করতে হবে।
গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করে। চলতি শিক্ষাবর্ষে চারটি অনুষদের ২৮টি বিভাগের আসনসংখ্যা গতবারের চেয়ে ৪৫টি বাড়িয়ে দুই হাজার ৬৩৫টি করা হয়েছে।
মুঠোফোনে এসএমএসের মাধ্যমে আবেদনের জন্য সার্ভিস চার্জসহ প্রতি ইউনিটে ফি লাগবে ৩৩০ টাকা। ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ অক্টোবর পর্যন্ত দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা আবেদন করা যাবে।
কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিট ২৯ অক্টোবর, বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিট ৫ নভেম্বর, বাণিজ্য অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিট ২৬ নভেম্বর এবং সামাজিক অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, টেলিটক সংযোগের মুঠোফোনের এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন করার পুরো প্রক্রিয়া শিক্ষার্থীরা ঘরে বসেই সম্পন্ন করতে পারবেন।
ওহিদুজ্জামান জানান, আবেদনকারীদের ভর্তি পরীক্ষার তারিখ, সময়, আসনবিন্যাস মুঠোফোনে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। শুধু ভর্তি পরীক্ষার সময় শিক্ষার্থীদের এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষার মূল প্রবেশপত্র ও একটি ফটোকপি এবং দুই কপি রঙিন পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত ছবি নিয়ে আসতে হবে।
ভর্তি পরীক্ষা, শিক্ষার্থীর যোগ্যতা, মুঠোফোনে আবেদন করার পদ্ধতিসহ বিস্তারিত জানা যাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট http://www.jnu.ac.bd-এ। এ ছাড়া ০১৫৫৫-৫৫৫০১৩ বা ০১৫৫৫-৫৫৫০১৪ হটলাইনে ফোন করে জানা যাবে।

মুঠোফোনের মাধ্যমে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১০-২০১১ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তির আবেদন করা যাবে। গতকাল সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত মুঠোফোনের মাধ্যমে ভর্তির আবেদন করা যাবে। আবেদন ফি ৫০০ টাকা। ভর্তি-সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট : http://www.cou.ac.bd থেকে জানা যাবে। এদিকে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুয়েট) ২০১০-২০১১ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে ভর্তির জন্য আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত অনলাইনে ভর্তির আবেদন করা যাবে। যোগ্য প্রার্থীদের নামের তালিকা আগামী ৩১ অক্টোবর প্রকাশ করা হবে। ভর্তি পরীক্ষা-সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট: http://www.kuet.ac.bd, নোটিশ বোর্ড ও রেজিস্ট্রার অফিসে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে পাওয়া যাবে।

news

fwZ© Z_¨ wb‡q Pvjy n‡Q bZzb mvBU

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে-২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষের প্রথমবর্ষ স্নাতক সম্মান শ্রেণীর ভর্তি পরীক্ষা অক্টোবরে শুরু হচ্ছে | ভর্তি পরীক্ষা প্রক্রিয়া দ্রুত ও সহজ করতে প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইন এবং মোবাইলের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। এর ফলে ক্যাম্পাসে না গিয়েই দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে আবেদন করা যাবে।

Avi GmKj Z_¨ wb‡q Pvjy n‡Q bZzb mvBU admissionsbd.wordpress.com

Hello world!

Welcome to WordPress.com. This is your first post. Edit or delete it and start blogging!

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে-২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষের প্রথমবর্ষ স্নাতক সম্মান শ্রেণীর ভর্তি পরীক্ষা অক্টোবরে শুরু হচ্ছে। ভর্তি পরীক্ষা প্রক্রিয়া দ্রুত ও সহজ করতে প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইন এবং মোবাইলের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। এর ফলে ক্যাম্পাসে না গিয়েই দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে আবেদন করা যাবে।
শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পথ ধরে এ বছরই প্রথমবারের মতো ঢাকা, জাহাঙ্গীরনগর, রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়সহ প্রায় সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এ ব্যবস্থায় মোবাইলের মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন ব্যবস্থা চালু করা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা ২৯ অক্টোবর থেকে শুরু হবে। ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার আবেদনপত্র অনলাইনে পূরণ করা যাবে। ২৯ অক্টোবর কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে ‘খ’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে ‘ক’ ইউনিটের পরীক্ষা ৫ নভেম্বর, বাণিজ্য অনুষদের অধীনে ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা ২৬ নভেম্বর এবং বিভাগ পরিবর্তনকারী ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া চারুকলা অনুষদের অধীনে ‘চ’ ইউনিটের পরীক্ষা হবে ১০ ডিসেম্বর। আবেদনপত্রের মূল্য ৩০০ টাকা এবং ব্যাংক মাশুল ২০ টাকাসহ ৩২০ টাকা জমা দিতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ধফসরংংরড়হ.ঁহরাফযধশধ.বফঁ এ ওয়েবসাইটে আবেদনপত্র এবং আবেদন পূরণ ও জমা দেয়ার প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া থাকবে। ফরম তোলার ক্ষেত্রে যাতে কোনো জটিলতা ও তথ্যবিভ্রাট না ঘটে, সে জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফরম বিতরণ ও জমাকালে নিজস্ব হটলাইন এবং টেলিফোন সিস্টেম চালু করবে।
এ বছরই স্বাস্থ্য অর্থনীতি বিভাগে প্রথম অনার্স কোর্স চালু হচ্ছে। এ বছর বিভাগটিতে ৬০টি আসনের মধ্যে ৩০ জন ‘ঘ’ ইউনিট এবং ৩০ জন ‘খ’ ইউনিট থেকে ভর্তি হবেন। এদিকে আগে শিক্ষা ও গবেষণা অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা স্বতন্ত্রভাবে নিলেও এ বছর খ ও ঘ ইউনিটের অধীনে থাকবে।
বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ভর্তি ফরম ২১ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ অক্টোবর বিতরণ করা হবে। ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ অক্টোবর সকাল ৯টায়। ভর্তি পরীক্ষার ফরম অনলাইনে বুয়েটের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। ভর্তি পরীক্ষা ফি ও শর্তাবলি আগের বছরের মতো অপরিবর্তিত থাকবে।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে ২৩ অক্টোবর থেকে। চলবে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত। ১ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভর্তি ফরম পূরণ করা যাবে। এ বছরই প্রথমবারের মতো অনলাইনে আবেদনপত্র পাওয়া যাবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৯ বছরের রীতি ভেঙে বিষয়ভিত্তিকের পরিবর্তে এবারে ইউনিটভিত্তিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষার নতুন নিয়মের কারণে এ বছর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেতে কারিগরি ও মাদ্রাসা বোর্ডের শিক্ষার্থীরা বঞ্চিত হচ্ছে। মাদ্রাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানে এসএসসি এবং এইচএসসি লেভেলে বাংলা ও ইংরেজিতে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা নেয়া হয়। মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষার্থীদের বাদ দিতে কলা ও মানবিক এবং সমাজবিজ্ঞান অনুষদের অধিকাংশ বিভাগে উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের বাংলা ও ইংরেজিতে ২০০ নম্বর আবশ্যিক করা হয়েছে। ভর্তির ফরম, বিভিন্ন তথ্য ও ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।
এ বছর জীববিজ্ঞান অনুষদের অধীনে বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ছাত্র ভর্তি করা হবে বলে জানা গেছে।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর। ৮টি অনুষদের অধীনে ৪৯টি বিষয়কে ১৭টি ইউনিটে বিভক্ত করে গুচ্ছ (ক্লাস্টার) পদ্ধতিতে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। মোবাইল অপারেটর টেলিটক থেকে এসএমএসের মাধ্যমে প্রাথমিক আবেদনপত্র সংগ্রহ করা যাবে। ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত ভর্তির আবেদনপত্র সংগ্রহ করা যাবে। তবে এ বছর সনাতন পদ্ধতি ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করা শিক্ষার্থীরা ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারবে না। চলতি বছরের ভর্তি পরীক্ষায় ৯টি বিভাগে ৯০টি আসন এবং আদিবাসীদের জন্য ১০টি আসনসহ ১০০টি আসন বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবে এসএমএসের মাধ্যমে আবেদনপত্র সংগ্রহের কথা বলা হলেও এখন পর্যন্ত কী পদ্ধতিতে ভর্তিচ্ছুরা আবেদনপত্র সংগ্রহ করবে, সে সম্পর্কে কিছুই জানানো হয়নি। ১ বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ১৫০ টাকা, ২ বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ২০০ টাকা, ৩ বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ২৫০ টাকা, ৪ বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ৩০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ৫টি বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ৩৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।
কুষ্টিয়াতে অবস্থিত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ অনুষদের অধীনে ৭টি ইউনিটে ২২টি বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার ফরম বিতরণ ও জমা চলবে। ১১ থেকে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষা চলবে। এ বছরই প্রথম এমসিকিউ পদ্ধতিতে ও অনলাইনের মাধ্যমে ভর্তি ফরম বিতরণ করা হবে।
এদিকে নতুন পদ্ধতিতে আবেদনকারীকে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ঊগঞঝ (ঊষবপঃত্ড়হরপ গড়হবু ঞত্ধহংভবত্ ঝুংঃবস) সুবিধা প্রদানকারী ৮০৬টি শাখার যে কোনো একটিতে ঊগঙ (ঊষবপঃত্ড়হরপ গড়হবু ঙত্ফবত্) পদ্ধতিতে প্রতিটি আবেদনপত্রের জন্য ৩শ’ টাকা, বিশেষ কোটায় আবেদনকারীদের ৪শ’ টাকা পোস্ট বক্স নং-২২২২ ঠিকানায় পাঠাতে হবে। আবেদনকারীকে ভর্তি পরীক্ষার নির্দেশিকা ও বাংলাদেশ ডাক বিভাগের নমুনা কপি অনুযায়ী এইচএসসি ও এসএসসির শিক্ষা বোর্ড, রোল নম্বর ও পাসের বছর উল্লেখ করে ঊগঙ ফরম পূরণ করতে হবে। টাকা প্রদান করলে ডাক বিভাগ আবেদনকারীকে একটি গোপন পিন নম্বর দেবে। পিন নম্বর পাওয়ার ৩৬ ঘণ্টা পর আবেদনকারী তা ব্যবহার করে ওয়েবসাইটে একটি ৩০০*৩০০ পিক্সেল সাইজের ছবি আপলোড করে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারবে। এতে ভর্তি পরীক্ষার সব তথ্যাবলি উল্লিখিত থাকবে। তবে আবেদনকারী কোনো সমস্যায় পড়লে তাত্ক্ষণিক যোগাযোগের জন্য atest1011@yahoo.com, admission@iceiu.info, ০১৭২৭৩০০১১৯, ০১৭১৩০৯৭৩৬৮ মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করতে পারবে।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কার্যক্রম এবার মোবাইলে সম্পন্ন করা হবে। টেলিটক মোবাইল থেকে এসএমএসের মাধ্যমে আগামী ১ থেকে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দিনরাত যে কোনো সময় এমনকি বন্ধের দিনেও ভর্তির জন্য আবেদন করা যাবে। রেজিস্ট্রেশনের জন্য টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে ঈট লিখে, স্পেস দিয়ে এইচএসসি শিক্ষা বোর্ডের নামের প্রথম তিনটি অক্ষর লিখে, স্পেস দিয়ে এইচএসসি পরীক্ষার রোল নম্বর লিখে, স্পেস এইচএসসি পাসের সাল, স্পেস এসএসসি শিক্ষা বোর্ডের নামের প্রথম তিনটি অক্ষর, স্পেস এসএসসি পরীক্ষার রোল নম্বর লিখে, স্পেস দিয়ে এসএসসি পরীক্ষার পাসের সাল লিখে স্পেস কাঙ্ক্ষিত ইউনিটের কি-ওয়ার্ডটি লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করতে হবে। বিজ্ঞান অনুষদ A, কলা অনুষদ B1, B2 (চারুকলা, আরবি, ইসলামিক স্টাডিজ, প্রাচ্যভাষা ও নাট্যকলা বিষয়ে ভর্তিচ্ছুদের জন্য), ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ c1 (উচ্চমাধ্যমিক ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা ডিপ্লোমা ইন কমার্স, ডিপ্লোমা ইকন বিজনেস স্টাডিজ শাখা), C2 (উচ্চমাধ্যমিক মানবিক শাখা), C3 (উচ্চমাধ্যমিক বিজ্ঞান শাখা), সমাজবিজ্ঞান অনুষদ D1 (উচ্চমাধ্যমিক মানবিক শাখা) D2 (বিজ্ঞান শাখা) D3 (উচ্চমাধ্যমিক ব্যবসায় শিক্ষা শাখা), আইন অনুষদ E, ইনস্টিটিউট অব ফরেস্টি F, ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্স G, এবং জীববিজ্ঞান অনুষদ H1, H2 (মনোবিজ্ঞান) H3 ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা।
সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস প্রথমবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১০ অক্টোবর। এবারই প্রথম সরকারি ও বেসরকারি ভর্তি পরীক্ষা সমন্বিতভাবে নেয়ার জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ফরম বিতরণ করা হবে। ১০০ নম্বরের এমসিকিউ ধরনের প্রশ্ন করা হবে। মেধাতালিকায় প্রথম ২ হাজার ৩১০ জন কৃতকার্য পরীক্ষার্থীকে সরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তির জন্য আহ্বান করা হবে। বেসরকারি মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ মেধাতালিকার প্রথম ২ হাজার ৩১০ বাদে পরের তালিকা থেকে ভর্তি হওয়ার জন্য বিজ্ঞাপন দিতে পারবে। তবে প্রথম ২ হাজার ৩১০ জনের মধ্যে কোনো ছাত্রছাত্রী ইচ্ছা করলে যে কোনো বেসরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তি হতে পারবে।
সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এবার আসন ৫ হাজার ৮১০টি। এর মধ্যে সরকারি মেডিকেল কলেজে ২ হাজার ৩১০টি। বাকিগুলো বেসরকারি মেডিকেল কলেজে। বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলো ২৫ শতাংশ আসনে বিদেশি ছাত্র ভর্তি করতে পারবে। সরকারি মেডিকেল কলেজে বিদেশি ছাত্রদের জন্য আসন নির্ধারণ করা আছে ৯৯টি। এর মধ্যে সার্ক অঞ্চলের দেশের জন্য ৫৪টি এবং সার্কের বাইরের দেশের ছাত্রদের জন্য ৪৫টি আসন রয়েছে। ডেন্টাল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা আলাদাভাবে অনুষ্ঠিত হবে।
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ফরম তোলা, জমা দেয়া ও পরীক্ষার পর রেজাল্ট ইত্যাদি মোবাইল ফোনের (টেলিটক থেকে) সহায়তা নিয়ে করা যাবে। এ বছর মোবাইল ফোনের এসএমএসের মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। এর ফলে শিক্ষার্থীদের হয়রানি ও ফরম-বাণিজ্য বন্ধ হবে। চলতি শিক্ষাবর্ষে চারটি অনুষদের ২৮টি বিভাগে ৪৫টি আসন বাড়িয়ে ২৬৩৫টি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
মোবাইল ফোনে রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে প্রথমে টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে ঔথবথষষথয়ভ লিখে স্পেস দিয়ে শিক্ষা বোর্ডের প্রথম ৩ অক্ষর (ইংরেজি বড় অক্ষরে) লিখে স্পেস দিয়ে এইচএসসি অথবা আলিম পরীক্ষার রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে কাঙ্ক্ষিত ইউনিটের ( যেমন : A, B, C অথবা D) টাইপ করে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর পাঠানো সব তথ্য সঠিক থাকলে ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে আবেদনকারীর নাম, ভর্তি ফি ও একটি PIN কোড জানিয়ে সম্মতি চাওয়া হবে। তখন শিক্ষার্থীকে ওই একই নম্বরে এসএমএস করে সম্মতি জানাতে হবে। এ জন্য শিক্ষার্থীকে আবারও ঔথবথষষথয়ভ লিখে স্পেস দিয়ে ণঊঝ লিখে স্পেস দিয়ে PIN (যে পিন কোডটি তাকে ফিরতি এসএমএসে দেয়া হবে) লিখে স্পেস দিয়ে আবেদনকারীর যোগাযোগের জন্য নিজের ব্যবহৃত (অন্য যে কোনো অপারেটরের) একটি মোবাইল নম্বর লিখে ওই একই নম্বর অর্থাত্ ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করতে হবে। শিক্ষা বোর্ড থেকে সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেয়ার যোগ্য বিবেচিত হলে তার মোবাইল ফোন থেকে নির্ধারিত ফি কেটে নিয়ে ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে সঙ্গে সঙ্গেই তাকে ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর জানিয়ে দেয়া হবে। ভর্তি পরীক্ষার দিন আবেদনকারীকে ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত ছবি ও ছবির পেছনে ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর লিখে আনতে হবে, যা তার প্রবেশপত্র হিসেবে বিবেচিত হবে।
শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৬ নভেম্বর। চলতি বছরে নতুন তিনটি বিভাগসহ ২৫টি বিভাগে ১ হাজার ৩৩০টি আসনে শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষা হবে। মোবাইলের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতির উদ্ভাবক শাবির ভর্তি ফরম এবারও একই পদ্ধতিতে ১ সেপ্টম্বর থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত পূরণ করা যাবে। চলতি বছরে চালু হওয়া নতুন বিভাগগুলো হলো ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড ইলেকটক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, জিওগ্রাফি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট এবং বায়োকেমেস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি। ৬ নভেম্বর সকাল ১০টায় ‘ক’ ইউনিট এবং বিকাল ৩টায় ‘খ’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি ফরম পূরণের জন্য মোবাইলের (টেলিটক সার্ভার) মেসেজ অপশনে গিয়ে যথাক্রমে ঝটঝঞ, বোর্ডের নামের প্রথম ৩ অক্ষর, এইচএসসি/সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর, পাসের বছর এবং পছন্দকৃত ইউনিটের কি-ওয়ার্ড (ইউনিটের কি-ওয়ার্ডগুলো হলো ‘ক’ ইউনিটভুক্ত সব বিভাগ A, ‘খ’ ইউনিটভুক্ত আর্কিটেকচারসহ সব বিভাগ ‘B’ এবং ‘খ’ ইউনিটভুক্ত আর্কিটেকচার ছাড়া সব বিষয় B1 লিখে ১৬২২২ নম্বরে সেন্ড করতে হবে। শিক্ষা বোর্ড থেকে সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষা দেয়ার যোগ্য হলে তার মোবাইলে ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে ফরমের মূল্য কেটে নিয়ে পরীক্ষার রোল নম্বর জানিয়ে দেয়া হবে। পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষার দিন সত্যায়িত করা সদ্য তোলা ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি এবং ছবির পেছনে ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর ও নাম লিখে আনতে হবে, যেটি হবে তার প্রবেশপত্র। ‘এ’ এবং ‘বি১’ বিভাগে রেজিস্ট্রেশনের জন্য ৫০০ টাকা এবং ‘বি’ বিভাগের জন্য ৫৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া সব তথ্য মোবাইল মুঠোফোন থেকে SUSTInfo লিখে ১৬২২২ নম্বরে খুদে বার্তা পাঠিয়ে অথবা ০১৫৫৫৫৫৫০০১-৫ হটলাইনে এবং যোগাযোগ করা যাবে এবং ফলাফল ও ভর্তি সংক্রান্ত অন্যান্য তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নোটিশ বোর্ড এবং ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।
ময়মনসিংহের ত্রিশালের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে-২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথমবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ২০ থেকে ২৮ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর ৫টি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তবে ভর্তির ফরম বিতরণ ও জমা দেয়ার তারিখ এখনও জানানো হয়নি। এ বছর আরও ৬টি নতুন বিষয় খোলা হবে বলে ভিসি অধ্যাপক ড. সৈয়দ গিয়াসউদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১৭ ডিসেম্বর শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে বেলা ১১টায়। ভর্তিচ্ছুরা এবার অনলাইনেই ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবে। গত বছর পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকা কলেজসহ কয়েকটি কলেজে এ প্রক্রিয়ায় ভর্তি কার্যক্রম চালানো হয়।

Amardesh

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে-২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষের প্রথমবর্ষ স্নাতক সম্মান শ্রেণীর ভর্তি পরীক্ষা অক্টোবরে শুরু হচ্ছে। ভর্তি পরীক্ষা প্রক্রিয়া দ্রুত ও সহজ করতে প্রায় সব বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইন এবং মোবাইলের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। এর ফলে ক্যাম্পাসে না গিয়েই দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে আবেদন করা যাবে।

শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পথ ধরে এ বছরই প্রথমবারের মতো ঢাকা, জাহাঙ্গীরনগর, রাজশাহী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়সহ প্রায় সব পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে এ ব্যবস্থায় মোবাইলের মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন ব্যবস্থা চালু করা হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা ২৯ অক্টোবর থেকে শুরু হবে। ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার আবেদনপত্র অনলাইনে পূরণ করা যাবে। ২৯ অক্টোবর কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে ‘খ’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে ‘ক’ ইউনিটের পরীক্ষা ৫ নভেম্বর, বাণিজ্য অনুষদের অধীনে ‘গ’ ইউনিটের পরীক্ষা ২৬ নভেম্বর এবং বিভাগ পরিবর্তনকারী ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া চারুকলা অনুষদের অধীনে ‘চ’ ইউনিটের পরীক্ষা হবে ১০ ডিসেম্বর। আবেদনপত্রের মূল্য ৩০০ টাকা এবং ব্যাংক মাশুল ২০ টাকাসহ ৩২০ টাকা জমা দিতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ধফসরংংরড়হ.ঁহরাফযধশধ.বফঁ এ ওয়েবসাইটে আবেদনপত্র এবং আবেদন পূরণ ও জমা দেয়ার প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া থাকবে। ফরম তোলার ক্ষেত্রে যাতে কোনো জটিলতা ও তথ্যবিভ্রাট না ঘটে, সে জন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ফরম বিতরণ ও জমাকালে নিজস্ব হটলাইন এবং টেলিফোন সিস্টেম চালু করবে।

এ বছরই স্বাস্থ্য অর্থনীতি বিভাগে প্রথম অনার্স কোর্স চালু হচ্ছে। এ বছর বিভাগটিতে ৬০টি আসনের মধ্যে ৩০ জন ‘ঘ’ ইউনিট এবং ৩০ জন ‘খ’ ইউনিট থেকে ভর্তি হবেন। এদিকে আগে শিক্ষা ও গবেষণা অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা স্বতন্ত্রভাবে নিলেও এ বছর খ ও ঘ ইউনিটের অধীনে থাকবে।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ভর্তি ফরম ২১ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ অক্টোবর বিতরণ করা হবে। ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৩০ অক্টোবর সকাল ৯টায়। ভর্তি পরীক্ষার ফরম অনলাইনে বুয়েটের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। ভর্তি পরীক্ষা ফি ও শর্তাবলি আগের বছরের মতো অপরিবর্তিত থাকবে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে ২৩ অক্টোবর থেকে। চলবে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত। ১ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভর্তি ফরম পূরণ করা যাবে। এ বছরই প্রথমবারের মতো অনলাইনে আবেদনপত্র পাওয়া যাবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩৯ বছরের রীতি ভেঙে বিষয়ভিত্তিকের পরিবর্তে এবারে ইউনিটভিত্তিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষার নতুন নিয়মের কারণে এ বছর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেতে কারিগরি ও মাদ্রাসা বোর্ডের শিক্ষার্থীরা বঞ্চিত হচ্ছে। মাদ্রাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানে এসএসসি এবং এইচএসসি লেভেলে বাংলা ও ইংরেজিতে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা নেয়া হয়। মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষার্থীদের বাদ দিতে কলা ও মানবিক এবং সমাজবিজ্ঞান অনুষদের অধিকাংশ বিভাগে উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের বাংলা ও ইংরেজিতে ২০০ নম্বর আবশ্যিক করা হয়েছে। ভর্তির ফরম, বিভিন্ন তথ্য ও ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

এ বছর জীববিজ্ঞান অনুষদের অধীনে বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ছাত্র ভর্তি করা হবে বলে জানা গেছে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৩০ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর। ৮টি অনুষদের অধীনে ৪৯টি বিষয়কে ১৭টি ইউনিটে বিভক্ত করে গুচ্ছ (ক্লাস্টার) পদ্ধতিতে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। মোবাইল অপারেটর টেলিটক থেকে এসএমএসের মাধ্যমে প্রাথমিক আবেদনপত্র সংগ্রহ করা যাবে। ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত ভর্তির আবেদনপত্র সংগ্রহ করা যাবে। তবে এ বছর সনাতন পদ্ধতি ও উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করা শিক্ষার্থীরা ভর্তি পরীক্ষা দিতে পারবে না। চলতি বছরের ভর্তি পরীক্ষায় ৯টি বিভাগে ৯০টি আসন এবং আদিবাসীদের জন্য ১০টি আসনসহ ১০০টি আসন বৃদ্ধি করা হয়েছে। তবে এসএমএসের মাধ্যমে আবেদনপত্র সংগ্রহের কথা বলা হলেও এখন পর্যন্ত কী পদ্ধতিতে ভর্তিচ্ছুরা আবেদনপত্র সংগ্রহ করবে, সে সম্পর্কে কিছুই জানানো হয়নি। ১ বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ১৫০ টাকা, ২ বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ২০০ টাকা, ৩ বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ২৫০ টাকা, ৪ বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ৩০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ৫টি বিষয়বিশিষ্ট ইউনিটের জন্য ৩৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

কুষ্টিয়াতে অবস্থিত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ অনুষদের অধীনে ৭টি ইউনিটে ২২টি বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ১ থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার ফরম বিতরণ ও জমা চলবে। ১১ থেকে ১৪ অক্টোবর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষা চলবে। এ বছরই প্রথম এমসিকিউ পদ্ধতিতে ও অনলাইনের মাধ্যমে ভর্তি ফরম বিতরণ করা হবে।

এদিকে নতুন পদ্ধতিতে আবেদনকারীকে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ঊগঞঝ (ঊষবপঃত্ড়হরপ গড়হবু ঞত্ধহংভবত্ ঝুংঃবস) সুবিধা প্রদানকারী ৮০৬টি শাখার যে কোনো একটিতে ঊগঙ (ঊষবপঃত্ড়হরপ গড়হবু ঙত্ফবত্) পদ্ধতিতে প্রতিটি আবেদনপত্রের জন্য ৩শ’ টাকা, বিশেষ কোটায় আবেদনকারীদের ৪শ’ টাকা পোস্ট বক্স নং-২২২২ ঠিকানায় পাঠাতে হবে। আবেদনকারীকে ভর্তি পরীক্ষার নির্দেশিকা ও বাংলাদেশ ডাক বিভাগের নমুনা কপি অনুযায়ী এইচএসসি ও এসএসসির শিক্ষা বোর্ড, রোল নম্বর ও পাসের বছর উল্লেখ করে ঊগঙ ফরম পূরণ করতে হবে। টাকা প্রদান করলে ডাক বিভাগ আবেদনকারীকে একটি গোপন পিন নম্বর দেবে। পিন নম্বর পাওয়ার ৩৬ ঘণ্টা পর আবেদনকারী তা ব্যবহার করে ওয়েবসাইটে একটি ৩০০*৩০০ পিক্সেল সাইজের ছবি আপলোড করে প্রবেশপত্র ডাউনলোড করতে পারবে। এতে ভর্তি পরীক্ষার সব তথ্যাবলি উল্লিখিত থাকবে। তবে আবেদনকারী কোনো সমস্যায় পড়লে তাত্ক্ষণিক যোগাযোগের জন্য atest1011@yahoo.com, admission@iceiu.info, ০১৭২৭৩০০১১৯, ০১৭১৩০৯৭৩৬৮ মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করতে পারবে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কার্যক্রম এবার মোবাইলে সম্পন্ন করা হবে। টেলিটক মোবাইল থেকে এসএমএসের মাধ্যমে আগামী ১ থেকে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দিনরাত যে কোনো সময় এমনকি বন্ধের দিনেও ভর্তির জন্য আবেদন করা যাবে। রেজিস্ট্রেশনের জন্য টেলিটক প্রিপেইড মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে ঈট লিখে, স্পেস দিয়ে এইচএসসি শিক্ষা বোর্ডের নামের প্রথম তিনটি অক্ষর লিখে, স্পেস দিয়ে এইচএসসি পরীক্ষার রোল নম্বর লিখে, স্পেস এইচএসসি পাসের সাল, স্পেস এসএসসি শিক্ষা বোর্ডের নামের প্রথম তিনটি অক্ষর, স্পেস এসএসসি পরীক্ষার রোল নম্বর লিখে, স্পেস দিয়ে এসএসসি পরীক্ষার পাসের সাল লিখে স্পেস কাঙ্ক্ষিত ইউনিটের কি-ওয়ার্ডটি লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করতে হবে। বিজ্ঞান অনুষদ A, কলা অনুষদ B1, B2 (চারুকলা, আরবি, ইসলামিক স্টাডিজ, প্রাচ্যভাষা ও নাট্যকলা বিষয়ে ভর্তিচ্ছুদের জন্য), ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ c1 (উচ্চমাধ্যমিক ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা ডিপ্লোমা ইন কমার্স, ডিপ্লোমা ইকন বিজনেস স্টাডিজ শাখা), C2 (উচ্চমাধ্যমিক মানবিক শাখা), C3 (উচ্চমাধ্যমিক বিজ্ঞান শাখা), সমাজবিজ্ঞান অনুষদ D1 (উচ্চমাধ্যমিক মানবিক শাখা) D2 (বিজ্ঞান শাখা) D3 (উচ্চমাধ্যমিক ব্যবসায় শিক্ষা শাখা), আইন অনুষদ E, ইনস্টিটিউট অব ফরেস্টি F, ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্স G, এবং জীববিজ্ঞান অনুষদ H1, H2 (মনোবিজ্ঞান) H3 ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যা।

সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস প্রথমবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১০ অক্টোবর। এবারই প্রথম সরকারি ও বেসরকারি ভর্তি পরীক্ষা সমন্বিতভাবে নেয়ার জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ফরম বিতরণ করা হবে। ১০০ নম্বরের এমসিকিউ ধরনের প্রশ্ন করা হবে। মেধাতালিকায় প্রথম ২ হাজার ৩১০ জন কৃতকার্য পরীক্ষার্থীকে সরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তির জন্য আহ্বান করা হবে। বেসরকারি মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ মেধাতালিকার প্রথম ২ হাজার ৩১০ বাদে পরের তালিকা থেকে ভর্তি হওয়ার জন্য বিজ্ঞাপন দিতে পারবে। তবে প্রথম ২ হাজার ৩১০ জনের মধ্যে কোনো ছাত্রছাত্রী ইচ্ছা করলে যে কোনো বেসরকারি মেডিকেল কলেজে ভর্তি হতে পারবে।

সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এবার আসন ৫ হাজার ৮১০টি। এর মধ্যে সরকারি মেডিকেল কলেজে ২ হাজার ৩১০টি। বাকিগুলো বেসরকারি মেডিকেল কলেজে। বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলো ২৫ শতাংশ আসনে বিদেশি ছাত্র ভর্তি করতে পারবে। সরকারি মেডিকেল কলেজে বিদেশি ছাত্রদের জন্য আসন নির্ধারণ করা আছে ৯৯টি। এর মধ্যে সার্ক অঞ্চলের দেশের জন্য ৫৪টি এবং সার্কের বাইরের দেশের ছাত্রদের জন্য ৪৫টি আসন রয়েছে। ডেন্টাল কলেজে ভর্তি পরীক্ষা আলাদাভাবে অনুষ্ঠিত হবে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ফরম তোলা, জমা দেয়া ও পরীক্ষার পর রেজাল্ট ইত্যাদি মোবাইল ফোনের (টেলিটক থেকে) সহায়তা নিয়ে করা যাবে। এ বছর মোবাইল ফোনের এসএমএসের মাধ্যমে ভর্তি পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। এর ফলে শিক্ষার্থীদের হয়রানি ও ফরম-বাণিজ্য বন্ধ হবে। চলতি শিক্ষাবর্ষে চারটি অনুষদের ২৮টি বিভাগে ৪৫টি আসন বাড়িয়ে ২৬৩৫টি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

মোবাইল ফোনে রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে প্রথমে টেলিটক প্রি-পেইড মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে ঔথবথষষথয়ভ লিখে স্পেস দিয়ে শিক্ষা বোর্ডের প্রথম ৩ অক্ষর (ইংরেজি বড় অক্ষরে) লিখে স্পেস দিয়ে এইচএসসি অথবা আলিম পরীক্ষার রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে কাঙ্ক্ষিত ইউনিটের ( যেমন : A, B, C অথবা D) টাইপ করে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর পাঠানো সব তথ্য সঠিক থাকলে ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে আবেদনকারীর নাম, ভর্তি ফি ও একটি PIN কোড জানিয়ে সম্মতি চাওয়া হবে। তখন শিক্ষার্থীকে ওই একই নম্বরে এসএমএস করে সম্মতি জানাতে হবে। এ জন্য শিক্ষার্থীকে আবারও ঔথবথষষথয়ভ লিখে স্পেস দিয়ে ণঊঝ লিখে স্পেস দিয়ে PIN (যে পিন কোডটি তাকে ফিরতি এসএমএসে দেয়া হবে) লিখে স্পেস দিয়ে আবেদনকারীর যোগাযোগের জন্য নিজের ব্যবহৃত (অন্য যে কোনো অপারেটরের) একটি মোবাইল নম্বর লিখে ওই একই নম্বর অর্থাত্ ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস করতে হবে। শিক্ষা বোর্ড থেকে সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেয়ার যোগ্য বিবেচিত হলে তার মোবাইল ফোন থেকে নির্ধারিত ফি কেটে নিয়ে ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে সঙ্গে সঙ্গেই তাকে ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর জানিয়ে দেয়া হবে। ভর্তি পরীক্ষার দিন আবেদনকারীকে ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের সত্যায়িত ছবি ও ছবির পেছনে ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর লিখে আনতে হবে, যা তার প্রবেশপত্র হিসেবে বিবেচিত হবে।

শাহ্জালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা আগামী ৬ নভেম্বর। চলতি বছরে নতুন তিনটি বিভাগসহ ২৫টি বিভাগে ১ হাজার ৩৩০টি আসনে শিক্ষার্থীদের ভর্তি পরীক্ষা হবে। মোবাইলের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতির উদ্ভাবক শাবির ভর্তি ফরম এবারও একই পদ্ধতিতে ১ সেপ্টম্বর থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত পূরণ করা যাবে। চলতি বছরে চালু হওয়া নতুন বিভাগগুলো হলো ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড ইলেকটক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, জিওগ্রাফি অ্যান্ড এনভায়রনমেন্ট এবং বায়োকেমেস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি। ৬ নভেম্বর সকাল ১০টায় ‘ক’ ইউনিট এবং বিকাল ৩টায় ‘খ’ ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি ফরম পূরণের জন্য মোবাইলের (টেলিটক সার্ভার) মেসেজ অপশনে গিয়ে যথাক্রমে ঝটঝঞ, বোর্ডের নামের প্রথম ৩ অক্ষর, এইচএসসি/সমমান পরীক্ষার রোল নম্বর, পাসের বছর এবং পছন্দকৃত ইউনিটের কি-ওয়ার্ড (ইউনিটের কি-ওয়ার্ডগুলো হলো ‘ক’ ইউনিটভুক্ত সব বিভাগ A, ‘খ’ ইউনিটভুক্ত আর্কিটেকচারসহ সব বিভাগ ‘B’ এবং ‘খ’ ইউনিটভুক্ত আর্কিটেকচার ছাড়া সব বিষয় B1 লিখে ১৬২২২ নম্বরে সেন্ড করতে হবে। শিক্ষা বোর্ড থেকে সংগৃহীত তথ্যের ভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষা দেয়ার যোগ্য হলে তার মোবাইলে ফিরতি এসএমএসের মাধ্যমে ফরমের মূল্য কেটে নিয়ে পরীক্ষার রোল নম্বর জানিয়ে দেয়া হবে। পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষার দিন সত্যায়িত করা সদ্য তোলা ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি এবং ছবির পেছনে ভর্তি পরীক্ষার রোল নম্বর ও নাম লিখে আনতে হবে, যেটি হবে তার প্রবেশপত্র। ‘এ’ এবং ‘বি১’ বিভাগে রেজিস্ট্রেশনের জন্য ৫০০ টাকা এবং ‘বি’ বিভাগের জন্য ৫৫০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া সব তথ্য মোবাইল মুঠোফোন থেকে SUSTInfo লিখে ১৬২২২ নম্বরে খুদে বার্তা পাঠিয়ে অথবা ০১৫৫৫৫৫৫০০১-৫ হটলাইনে এবং যোগাযোগ করা যাবে এবং ফলাফল ও ভর্তি সংক্রান্ত অন্যান্য তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নোটিশ বোর্ড এবং ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।
ময়মনসিংহের ত্রিশালের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে-২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথমবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা আগামী ২০ থেকে ২৮ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর ৫টি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তবে ভর্তির ফরম বিতরণ ও জমা দেয়ার তারিখ এখনও জানানো হয়নি। এ বছর আরও ৬টি নতুন বিষয় খোলা হবে বলে ভিসি অধ্যাপক ড. সৈয়দ গিয়াসউদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন ভর্তি পরীক্ষা আগামী ১৭ ডিসেম্বর শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে। ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে বেলা ১১টায়। ভর্তিচ্ছুরা এবার অনলাইনেই ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবে। গত বছর পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকা কলেজসহ কয়েকটি কলেজে এ প্রক্রিয়ায় ভর্তি কার্যক্রম চালানো হয়।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১০-২০১১ শিক্ষাবর্ষ থেকে প্রথমবারের মতো মুঠোফোনের খুদে বার্তার মাধ্যমে প্রথমবর্ষ সম্মান শ্রেণীতে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে।
আজ শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে উপাচার্য অধ্যাপক এম আবদুস সোবহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ভর্তি কমিটিসংক্রান্ত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
ভর্তি কমিটি সূত্রে জানা গেছে, চলতি শিক্ষাবর্ষে প্রথমবর্ষে ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন টেলিটক মোবাইল ফোনের খুদে বার্তার মাধ্যমে আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত জমা নেওয়া হবে। আর ভর্তি পরীক্ষা ৩০ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্তর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। এবার বিশ্ববিদ্যালয়ের আটটি অনুষদের আওতায় মোট ১৭টি ইউনিটে ভর্তির জন্য আবেদন করা যাবে।
ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদনপত্রের জন্য একটি বিভাগের ইউনিটের জন্য ১৫০ টাকা, দুটি বিভাগের ইউনিটের জন্য ২০০ টাকা, তিনটি বিভাগের ইউনিটের জন্য ২৫০ টাকা, চারটি বিভাগের ইউনিটের জন্য ৩০০ টাকা ও পাঁচটি বিভাগের ইউনিটের জন্য ৩৫০ টাকা ফি নির্ধারণ করা হয়েছে।
ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য বিজ্ঞান শাখার শিক্ষার্থীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ সহ মোট জিপিএ ৮.০০ পেতে হবে। মানবিক শাখার শিক্ষার্থীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.২৫ করে মোট জিপিএ ৭.০০ থাকতে হবে। আর বাণিজ্য শাখার শিক্ষার্থীদের এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান উভয় পরীক্ষায় চতুর্থ বিষয়সহ ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ করে মোট জিপিএ ৭.৫০ থাকতে হবে।
উপাচার্য এম আবদুস সোবহান জানান, ভর্তিসম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্যাদি সংবাদপত্রে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটের (www.ru.ac.bd) মাধ্যমে যথাসময়ে প্রকাশ করা হবে।

logo